বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩১st অক্টোবর ২০১৮

জাতীয় শিশু-কিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ২০১৮ এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হলো


প্রকাশন তারিখ : 2018-11-01

 

গতকাল ৩০শে অক্টোবর, মঙ্গলবার ঢাকার আগারগাঁওয়ে অবস্থিত আইসিটি টাওয়ারে আইসিটি বিভাগ আয়োজিত জাতীয় শিশু কিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ২০১৮ এর ফলাফল ঘোষণা ও পুরষ্কার বিতরণের জমজমাট অনুষ্ঠান হয়ে গেল।

 

গত এপ্রিল-মে ২০১৮ সময়কালে দেশের ৬৪ টি জেলার ১৮০ টি শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবে একযোগে জাতীয় শিশু-কিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার জেলা পর্যায়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে পাঁচ সহস্রাধিক শিশু-কিশোর অংশগ্রহণ করে। এর মধ্যে প্রাথমিক পর্যায়ের (৩য়-৫ম শ্রেণী ) শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে জাতীয় শিশু প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় এবং মাধ্যমিক পর্যায়ের (৬ষ্ঠ-১০ম শ্রেণী) শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে জাতীয় হাই-স্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায়। শিশুদের জন্য প্রোগ্রামিং ভাষা হিসেবে স্ক্র্যাচ (Scratch) এবং হাইস্কুল পর্যায়ের জন্য সি/পাইথন ব্যবহৃত হয়। জেলা পর্যায়ের ২৫৪ জন বিজয়ীদের নিয়ে সাভারের শেখ হাসিনা জাতীয় যুব উন্নয়ন কেন্দ্রে ৬-১০ জুন অনুষ্ঠিত হয় জাতীয় ক্যাম্প ও চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা। জাতীয় ক্যাম্পে শিশু প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় ১২৫ জন এবং হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় ১২৯ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে। বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল, Center for Research and Information (CRI) এর সহযোগিতায় দেশব্যাপী এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান সম্পন্ন করে।

 

পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান শুরু হয় সকাল ১১ টায়। সকাল ৯ টা থেকেই অভিভাবক ও শিক্ষকদের সাথে শিশু-কিশোর প্রতিযোগীরা আইসিটি টাওয়ারে আসতে থাকে। চূড়ান্ত পর্বে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে হতে ৮০ জন শিশু-প্রতিযোগী ও ৪২ জন হাইস্কুল পর্যায়ের প্রতিযোগীসহ অভিভাবক ও শিক্ষক মিলিয়ে প্রায় তিনশত অতিথি দিয়ে অনুষ্ঠান শুরুর অনেক আগেই বিসিসি অডিটোরিয়াম পরিপূর্ণ হয়ে যায়। এরপর আগত অতিথিদের অধিকাংশকে অডিটোরিয়ামের বিভিন্ন জায়গায় দাঁড়িয়ে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে হয়।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি বিভাগের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইসিটি বিভাগের সচিব জুয়েনা আজিজ। এছাড়া মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন জনাব পার্থপ্রতিম দেব, নির্বাহী পরিচালক, বিসিসি ও জনাব সাব্বির বিন শামস, নির্বাহী পরিচালক, সিআরআই। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিসিসি’র পরিচালক (প্রশিক্ষণ) জনাব মোহাম্মদ এনামুল কবির।

 

সবশেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার এবং উত্তীর্ণ সকল প্রতিযোগীকে সনদপত্র প্রদান করা হয়। জাতীয় শিশু প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার চ্যাম্পিয়ন, ১ম রানার আপ, ২য় রানার আপ দল  এবং জাতীয় হাইস্কুল প্রতিযোগিতার জুনিয়র ও সিনিয়র ক্যাটাগরির  চ্যাম্পিয়ন, ১ম রানার আপ, ২য় রানার আপ স্থান অর্জনকারীদের পুরষ্কার হিসেবে ল্যাপটপ, বই, ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। জাতীয় শিশু প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার পরবর্তী ৩টি দলকে Outstanding Performance এর জন্য ট্যাব, বই ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।  জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার জুনিয়র ও সিনিয়র ক্যাটাগরির Outstanding Performance এর জন্য ১০ জন করে সর্বোমোট ২০ জনকে যথাক্রমে ট্যাব ও স্মার্টফোন পুরষ্কার হিসেবে প্রদান করা হয়। এ অনূষ্ঠানের প্লাটিনাম সম্পন্সর ছিল মাইক্রোসফট বাংলাদেশ। ওয়ালটনের সৌজন্যে ল্যাপটপ, ওকে মোবাইলের সৌজনে ট্যাব, সিম্ফনির সৌজন্যে স্মার্টফোন  এবং পোস্টাল পেমেন্ট সিস্টেম নগদ ও তাম্রলিপি প্রকাশনীর সৌজন্যে বই প্রদান করা হয়।

 

পুরষ্কার প্রাপ্তদের তালিকা:

 

জাতীয় শিশু প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা

মেধাতালিকা

জেলা

প্রতিযোগীদের নাম

চ্যাম্পিয়ন

মানিকগঞ্জ

মেহজাবিন বুশরা, অনন্য জারিফ, রোদেলা ইসলাম

১ম রানার আপ

লালমনিরহাট

শামসুজ্জামান আবিদ, আহসান হাবীব সিহাব, জুবায়েদ জামান সাম্য

২য় রানার আপ

চট্টগ্রাম

তাসমিয়াহ আবরার, রাইম উমায়ের সাআদ, জাহিন আওসাফ

 

 

জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা

 

জুনিয়র ক্যাটাগরিঃ

মেধাতালিকা

প্রতিযোগির নাম

জেলা

চ্যাম্পিয়ন

মোঃ রাব্বি হোসেন

jvjgwbinvU

১ম রানার আপ

শরীফ রাফিদ-উর-রহমান

মাগুরা

২য় রানার আপ

দিব্য জ্যোতি রায়

jvjgwbinvU

 

 

সিনিয়র ক্যাটাগরিঃ  

মেধাতালিকা

প্রতিযোগির নাম

জেলা

চ্যাম্পিয়ন

আরমান ফেরদৌস

ঢাকা

১ম রানার আপ

পার্থিব দাশগুপ্ত

ঢাকা

২য় রানার আপ

আরিফ রায়হান মাহী

ঝিনাইদহ

 
 

Share with :

Facebook Facebook