বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩rd অক্টোবর ২০১৮

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ৩২ হাজার দক্ষ জনবল তৈরি করেছে সরকার


প্রকাশন তারিখ : 2018-10-03

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ৩২ হাজার দক্ষ জনবল তৈরি করেছে সরকার

 

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের বিকাশে বিশ্বমানের আইটি প্রশিক্ষণে ৩১ হাজার ৯৩০ জন আইটি প্রশিক্ষিত দক্ষ জনবল তৈরি করেছে সরকার। 

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সূত্র মতে, প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্নেন্স (এলআইসিটি) প্রকল্প যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান আর্নস্ট অ্যান্ড ইয়ংকে (ইওয়াই) নিয়োগ দেয়। তারা দেশি-বিদেশি অভিজ্ঞ প্রশিক্ষকদের দ্বারা ৬৪ জেলার বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনলাইনে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার মাধ্যমে বাছাইকৃত ৩২ হাজার স্নাতক ও স্নাতকোত্তর তরুণ-তরুণীদের বিশ্বমানের আইটি প্রশিক্ষণ দেয়। 


প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের মধ্যে টপ-আপ আইটিতে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে ১০ হাজার তরুণ-তরুণী যারা আইটি এবং বিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী এবং ২১ হ্জাার ৯৩০ জন নন-আইটি গ্রাজুয়েট ফাউন্ডেশন স্কিলসে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে। জুলাই ২০১৮ পর্যন্ত টপ-আপ আইটিতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের ৪ হাজার ৫৯ জনের বিভিন্ন আইটি-আইটিইএস প্রতিষ্ঠানে চাকরি হয়েছে।

বিসিসির নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব বলেন, তরুণেরাই বাংলাদেশের বড় সম্পদ। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হলে এসব তরুণদের মধ্যে যারা শিক্ষিত তাদের একুশ শতকের উপযোগী দক্ষ মানব সম্পদ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। 

তিনি বলেন, দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বিকাশে দক্ষ মানুষের ঘাটতি রয়েছে। এলআইসিটি প্রকল্পের আওতায় গড়ে তোলা এ ৩২ হাজার দক্ষ মানুষ এ ঘাটতি অনেকাংশে পূরণ করতে সক্ষম হবে। গুণগত মানের প্রশিক্ষণ পাওয়ায় এসব তরুণ-তরুণী দেশের আইটি খাতকে দ্রুত বিকশিত করায় ভূমিকা রাখবে।

ইওয়াইয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, বিশ্বমানের প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করার জন্য আর্নস্ট অ্যান্ড ইয়ং প্রথমে দেশি-বিদেশি প্রশিক্ষকদের নিয়ে মাস্টার ট্রেইনারদের একটি পুল তৈরি করে। মাস্টার টেইনারদের দক্ষতা উন্নয়নের জন্য জর্জ ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন অধ্যাপক প্রশিক্ষণ প্রদান করেন। তারা হলেন- ড. শুভাশিষ দাশগুপ্ত ও ড. শিবরাজ কানুনগো। 

আর্নস্ট অ্যান্ড ইয়ং এর প্রকল্প পরিচালক কামাল মানশারামামি বলেন, প্রশিক্ষণের কনটেন্ট যুক্তরাষ্ট্রের জর্জ ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভেরিফায়েড করা হয়। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত তরুণ-তরুণীদের মনিটরিং করার জন্য একটি মনিটরিং অ্যাপ ও তাদের ডেটা বেইজ সংরক্ষণ ও অনলাইনে কর্মসংস্থানের জন্য বিডিস্কিলস.গভ.বিডি (bdskills.gov.bd) শীর্ষক একটি ওয়েবপোর্টাল তৈরি করা হয়। গুণগতমানের প্রশিক্ষণ পাওয়ায় এ প্লাটফরম ব্যবহার করে অনেকেই চাকরি পেয়ে যাচ্ছেন। 

আইটি-আইটিইএস শিল্পে বিনিয়োগকারীরাও এ প্লাটফরমের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তি পাচ্ছে।

সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন, ৩রা অক্টোবর, ২০১৮।


Share with :

Facebook Facebook