বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৩rd জুন ২০১৯

প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য ‘চাকুরী মেলা ২০১৯’ অনুষ্ঠিত


প্রকাশন তারিখ : 2019-05-30

 

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অংশ হিসেবে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের তথ্যপ্রযুক্তিতে  ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। এ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি)প্রশিক্ষিত প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সাথে চাকুরীদাতা প্রতিষ্ঠানসমূহের সেতুবন্ধন রচনার জন্য ২০১৫ সন হতে চাকুরী মেলা আয়োজন করে আসছে। এর ধারাবাহিকতায় সেন্টার ফর সার্ভিসেস এন্ড ইনফরমেশন অন ডিজ্যাবিলিটি (সিএসআইডি) এর সহযোগিতায় বিসিসি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে ২৪ এপ্রিল, ২০১৯ তারিখ বুধবার আইসিটি টাওয়ারে ৫ম বারের মত ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের চাকুরী মেলা ২০১৯’ আয়োজন করে। উক্ত চাকুরী মেলা উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক এমপি,মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং আইসিটি বিভাগের সম্মানিত সচিব জনাব  এন এম জিয়াউল আলম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিসিসি’র নির্বাহী পরিচালক জনাব পার্থপ্রতিম দেব।

 

মাননীয় মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, “সমাজে প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বলে আলাদা কোনো মানুষ নেই। আমাদের সবার মধ্যে কিছু না কিছু দুর্বলতা রয়েছে। কারো মধ্যে কম, কারো মধ্যে হয়তো বেশি। সেই বিবেচনায় আমরা সবাই কমবেশি প্রতিবন্ধী।“ তিনি বলেন, “প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আমাদের মধ্যকার দুর্বলতা ও বৈষম্য কমিয়ে আনা সম্ভব। প্রযুক্তির বহুবিধ ব্যাবহারের মাধ্যমে সমাজে প্রতিবন্ধী হিসেবে পরিচিতিদের কর্মমুখী করে তোলা সম্ভব।“  ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সমস্ত সুবিধা নিশ্চিতে কাজ করবে বলে মন্ত্রী আশ্বস্ত করেন।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক তাঁর বক্তব্যে বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিন্নভাবে সক্ষমদের জন্য ২০১৩ সালে প্রথম প্রতিবন্ধী অধিকার আইন পাশ করেছেন। এর ফলে আমরা তাদেরকে অধিকার প্রদান করি। এছাড়া ইতিমধ্যে ৩ হাজার প্রতিবন্ধীকে মূল ধারায় নিয়ে আসতে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। যার মধ্যে দেড় হাজার জনের প্রশিক্ষণ গ্রহণ প্রায় শেষের দিকে।“ তিনি আরো বলেন, “দেশের প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে প্রযুক্তির আওতায় আনা হবে। ইতোমধ্যে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মসংস্থান হওয়া প্রতিবন্ধীরা সাধারণ, সুস্থ সবল মানুষের চেয়ে কম নয় বরং কোনো কোনো ক্ষেত্রে বেশি কর্যকরী ভূমিকা রাখছে।“ 

উল্লেখ্য এ মেলা প্রতিবছর জানুয়ারী মাসের প্রথম দিন অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।  তবে বিগত জাতীয় নির্বাচন ও সংশ্লিষ্ট আনুষ্ঠানিকতার জন্য ২০১৯ সনে ঐদিন মেলা আয়োজন করা সম্ভব হয়নি। এবার মেলায় Bangladesh Business and Disability Network (BBDN), My Outsourcing Ltd., Genex Infosys Limited, Bangladesh Association of Call Center and Outsourcing(BACCO), Cyber Cafe Owners Association of Bangladesh(CCOAB), Genweb2 Limited, Digicon Technology Limited, Belancer, SOFTWAY IT & BANGLADESH DIGITAL SCALES, UY Systems Ltd, Bangladesh Computer Samity (BCS), ThengamaraSabaj Sangha (TMSS), POSMI SWEATERS LIMITED, FIFO Tech, The Federation of Bangladesh Chambers of Commerce and Industry (FBCCI), Chakrionline, Mateors Dot Com, Adventure-Soft, Rational Technologies Ltd, LEADS Corporation Limited, AmarStock Limited, Technics Computers (Pvt.) Ltd, Bangladesh Knitwear Manufacturers and Exporters Association (BKMEA) সহ ২৩ টি তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন মেলায় অংশগ্রহণ করে।

মেলায় সারাদেশ থেকে বিভিন্ন ধরনের মোট ৫১৮ জন চাকুরী প্রার্থী প্রতিবন্ধী ব্যক্তি অংশগ্রহণ করেন, এর মধ্যে শারীরিক প্রতিবন্ধী ৩৫১ জন, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ৭৪ জন, বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী ৮৭ জন এবং এনডিডি ০৬ জন উপস্থিত ছিল। অনুষ্ঠানে প্রায় ১০০ জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অভিভাবক উপস্থিত ছিলেন।

চাকুরী মেলা সকাল ৮:০০ টা থেকে শুরু হয় এবং বিকাল ৫:০০ টা পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকে। মেলা চলাকালীন প্রতিষ্ঠানসমূহ তাদের স্টলে সাক্ষাৎকার গ্রহণের ব্যবস্থা করে। সাক্ষাৎকার শেষে চাকুরীদাতা প্রতিষ্ঠানসমূহ ৩৮৩ জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত করে। উল্লেখ্য ২০১৫ সালে ৩২ জন, ২০১৬ সালে ৬০ জন, ২০১৭ সালে ১১৫ জন এবং ২০১৮ সালে ১৭৬ জন দক্ষ প্রতিবন্ধী ব্যক্তির কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হয়।


Share with :

Facebook Facebook